Breaking News

প্রেসিডেন্ট পদে লড়তে চান তিনি!




  • শুরুতে তিনি ছিলেন রেসলিংয়ের মানুষ। পরে হঠাৎ দেখা গেল অভিনেতা হিসেবে। দুই ক্ষেত্রেই বেশ সফলতার পরিচয় দিয়েছেন তিনি। কিন্তু এবার জানালেন প্রেসিডেন্ট পদে লড়তে চান তিনি!সম্প্রিতি একটি সাক্ষাৎকারে এমন কথা জানালেন ‘বেওয়াচ’ অভিনেতা ডোয়াইন জনসন।

    ৪৪ বছর বয়সী এই তারকা গত সপ্তাহে অনুষ্ঠিত আমেরিকার প্রেসিডেন্ট নির্বাচন নিয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন। তার মতে, ডোনাল্ড ট্রাম্পের জয় দেখিয়ে দিয়েছে, আমেরিকায় যে কোনও কিছুই ঘটতে পারে। কাজেই আমেরিকার পরবর্তী প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে যদি ডোয়াইন জনসনকে লড়তে দেখা যায়, অবাক হওয়ার কিছু নেই। এমনটা জানাচ্ছেন অভিনেতা নিজেই!

    কোনদিন মার্কিন প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী হয়ে নির্বাচনে লড়বেন কিনা এর জবাবেই ‘দ্য রক’ বলেছেন, ‘যদি সুযোগ মেলে, কেন নয়! সাধারণ মানুষের সেবা করার এই সুযোগটা ছাড়া উচিৎ হবে না। তাছাড়া যে কোনও কিছু যে ঘটা সম্ভব, সেটা তো আমেরিকার মানুষ এবার দেখতেই পেলেন!’ তার কথায়, ‘আমার দেশকে ভালোবাসি। আমি দেশপ্রেমিক মানুষ। আমি মনে করি, বর্তমান পরিস্থিতিতে যোগ্য নেতৃত্ব খুবই গুরুত্বপূর্ণ। দেশের কল্যাণে ভালো নেতৃত্ব ও সম্মানজনক নেতৃত্ব প্রয়োজন।’

    কিন্তু প্রত্যক্ষ রাজনীতিতে কোনদিনই সরাসরি যুক্ত ছিলেন না ডোয়াইন। তবে এর আগে রাজনীতিতে ডোয়াইন জনসনের নাম জড়ানো হয়েছে। চলতি বছরের শুরুর দিকে ওয়াশিংটন পোস্টের এক সাংবাদিক তার মধ্যে রাজনৈতিক ক্যারিয়ার গড়ার গুণাবলি আছে বলে উল্লেখ করায় ইনস্টাগ্রামে তাকে ধন্যবাদ দেন তিনি। এর আগে বিভিন্ন পলিটিক্যাল ইভেন্টে যোগ দিয়েছেন তিনি। রিপাবলিকান ন্যাশনাল কনভেনশনে বক্তৃতা দেয়ার অভিজ্ঞতাও রয়েছে তার। যেখানে অল্পবয়সী ছেলেমেয়েদের ভোট দিতে উত্সাহ দিয়েছিলেন ডোয়াইন। তবে ভবিষ্যতে যে রাজনীতিতে আসতে পারেন, সে ইঙ্গিত এখন থেকেই দিয়ে রাখলেন অভিনেতা।

    উল্লেখ্য, এই মুহূর্তে ‘বেওয়াচ’ ছবির কাজে ব্যস্ত আছেন এই অভিনেতা। ছবিটি আগামী বছরের মে মাসে মুক্তির কথা রয়েছে। এতে তার সঙ্গে অভিনয় করেছেন বলিউড অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়া।