Breaking News

চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে খারাপ করার সম্ভাবনা নেই বাংলাদেশের: রাজ্জাক

আবদুর রজ্জাক ও নাসির হোসেন। ছবি: এএফপি







  • অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড ও ইংল্যান্ডের মতো ‘দৃশ্যমান’ প্রতিপক্ষের সঙ্গে যোগ হয়েছে ইংল্যান্ডের অপরিচিত কন্ডিশন। সবমিলিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে বাংলাদেশ কতটা ভালো করবে তা সময়ই বলে দেবে। তবে ওয়ানডে ফরম্যাট বলেই ভাবনার পালে বইছে সুবাতাস। দেশের জ্যৈষ্ঠ ক্রিকেটার ও বাঁ-হাতি স্পিনার আব্দুর রাজ্জাকের মতে, বাংলাদেশের ভালো করার সুযোগ আছে। তবে খারাপ করবে না তা একরকম নিশ্চিত।

    চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে বাংলাদেশের সম্ভাবনা নিয়ে প্রিয়.কমকে রাজ্জাক বলেন, ‘ভাল হওয়ার চান্স আছে। মোটামুটি হবে। কিন্তু খারাপ হওয়ার সম্ভাবনা নাই বললেই চলে। সমস্যা হলো, চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ সবাই অনেক শক্তিশালী। ওই কন্ডিশনে তারা আমাদের চেয়েও অনেক বেশি অভ্যস্ত। সেসব দিক থেকে আমাদের থেকে এমনিতেও এগিয়ে থাকবে।’

    ওয়ানডে র‍্যাংকিংয়ের শীর্ষ আট দল নিয়ে জুন মাসের এক তারিখ থেকে ইংল্যান্ডে শুরু হচ্ছে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির আসর। উদ্বোধনী ম্যাচেই স্বাগতিক ইংল্যান্ডের বিপক্ষে মাঠে নামবে বাংলাদেশ দল। তার আগে এই টুর্নামেন্টকে সামনে রেখে নিজেদের প্রস্তুতিটা সেরে নিচ্ছে মাশরাফি বিন মুর্তজারা।

    জাতীয় দলের হয়ে ইংল্যান্ডের মাটিতে তিনটি ওয়ানডে খেলেছেন রাজ্জাক। ২০১০ সালে ন্যাটওয়েস্ট সিরিজের বরাত দিয়ে তিন ম্যাচে নিয়েছিলেন তিনটি উইকেট। সর্বোচ্চ এক ম্যাচে দুটি উইকেট ছিলো তার। সেক্ষেত্রে, ইংলিশ কন্ডিশনের চরিত্র জানা আছে রাজ্জাকের। তামিম-মুশফিকদের সুবাদে ব্যাটিংয়ে ভালো করবে লাল-সবুজ জার্সিধারীরা, তা নিয়ে বিন্দুমাত্র সন্দেহ নেই তার। তবে দুশ্চিন্তার জায়গাটা স্পিন তথা, বোলিং বিভাগ নিয়ে।

    রাজ্জাক জানিয়েছেন, ইংল্যান্ডের ফ্ল্যাট উইকেট ব্যাটিংবান্ধব হওয়ায় অনেক বেশি রান উঠবে। অন্যদিকে বিপাকে পড়বে বোলাররা। বাঁ-হাতি কিংবা ডানহাতি; স্পিনে ইংল্যান্ডের উইকেট তেমন কোনো সাহায্য দেবে না বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

    বাংলাদেশের হয়ে ১৫৩ ওয়ানডেতে ২০৭ সাত উইকেট নেওয়া এই স্পিনার বলেন, ‘আসলে ইংল্যান্ডের উইকেটে স্পিন ভাল ধরেই না। টার্নও থাকে না। তার সাথে ব্যাটিং কন্ডিশন, রান ওঠে অনেক বেশি। স্পিনে তেমন কোন সহায়তা পাওয়া যায় না বললেই চলে। সেদিক থেকে বুদ্ধি করে বল করলে হয়তো অনেক কিছু সম্ভব।’

    তারপরও বাংলাদেশের আশা দেখছেন এই মুহূর্তে দলের বাইরে থাকা অভিজ্ঞ এই ক্রিকেটার। কারণটা আর কিছুই নয়, দলের চলমান সাফল্যে পাওয়া আত্মবিশ্বাস। সর্বশেষ ত্রিদেশীয় সিরিজে নিউজিল্যান্ডকে হারানোটাও বিশেষ গুরুত্বের সঙ্গে দেখছেন বাংলাদেশের হয়ে ওয়ানডেতে প্রথম ২০০ উইকেট শিকার করা এই স্পিনার।

    বললেন, ‘আমরা ত্রিদেশীয় সিরিজে প্রায় ইংল্যান্ডের কাছাকাছি কন্ডিশনে নিউজিল্যান্ডকে হারিয়েছি, আয়ারল্যান্ডকে হারিয়েছি। এগুলো দলকে বাড়তি আত্মবিশ্বাস দেবে।’

    এই মুহূর্তে ক্রিকেটের বাইরে আছেন রাজ্জাক। চললাম ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগে শেখ জামাল ধানমন্ডির হয়ে খেলতে গিয়ে ইনজুরিতে পড়েন তিনি । বিকেএসপিতে চলতি মে মাসের ছয় তারিখে খেলাঘর সমাজ কল্যাণ সমিতির বিপক্ষে রান নিতে গিয়ে বাম ডান হাঁটুতে ও বাম পায়ের ঊরুর পেশিতে ব্যথা পান। এই চোটে তিন সপ্তাহের জন্য মাঠের বাইরে ছিটকে যান সাত ম্যাচে ২১ উইকেট নেওয়া এই স্পিনার। ইনজুরিতে পড়ার ম্যাচেও পাঁচ উইকেট ছিল তার। এই মুহূর্তে পুনর্বাসন নিয়ে ব্যস্ত তিনি। জানালেন, জগিং শুরু করেছেন। কিছুদিনের মধ্যেই শুরু হবে রানিং।

    প্রিয় স্পোর্টস/ শান্ত মাহমুদ